ব্রেকিং নিউজ

x


অভাবের সংসারে এল নতুন অতিথি, ঠাঁই হলো অন্যের ঘরে

শনিবার, ১০ অক্টোবর ২০২০ | ৯:৪০ পূর্বাহ্ণ

অভাবের সংসারে এল নতুন অতিথি, ঠাঁই হলো অন্যের ঘরে

অভাবের তাড়না ও ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেড়ে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার টিপার বাজার এলাকার এক শ্রবণপ্রতিবন্ধী মা তার তিন দিনের ছেলেসন্তানকে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে। লালমনিরহাটের টিপার বাজার এলাকার জোকতার আলীর স্ত্রী শ্রবণপ্রতিবন্ধী হাসিনার গত মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) দুপুরে এক ছেলেসন্তান ভূমিষ্ঠ হয়। তিন দিন পর সন্তানটি তুলে দেয়া হয় অন্যের হাতে। সদ্য জন্মানো সন্তানসহ তার আরও দুই ছেলে ও এক কন্যা রয়েছে।

তবে স্বামী সন্তান থাকলেও তার কপালে জোটেনি সুখ নামের সোনার হরিণ। স্বামী জোকতার দিন মজুরি ও কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করলেও দ্বিতীয় বিয়ে করে ১০-১৫ বছর ধরে তাকে নিয়ে বসবাস করছেন কুড়িগ্রাম উপজেলার রাজারহাট উপজেলায়। তবে মাঝেমধ্যেই সে লালমনিরহাটের টিপার বাজার এসে রাতযাপন করত শ্রবণ প্রতিবন্ধী হাসিনার সঙ্গে এমন অভিযোগ স্থানীয়দের। স্থানীয়রা জানায়, কোনো দায়িত্ব পালন করতেন না স্বামী জোকতার। তাকে আর কেউ দেখাশোনা কিংবা তার জীবনযাপনের দায়িত্ব না নেয়ায় অসহায় হাসিনা অন্যের বাড়িতে কাজ করে অতিকষ্টে জীবন যাপন করত। করোনাসহ নানান কারণে ভাটার টান পড়লে তার দায় দেনা পরিমাণ দাঁড়ায় ১০ হাজার টাকায়। এ অবস্থায় কোলজুড়ে আসা সন্তানটি লালনপালন ও দেনার টাকা পরিশোধ করা দুশ্চিন্তায় তার সন্তান সে বিক্রি করে। এদিকে সারপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আজিজুল ইসলাম জানালেন, অভাব-অনটনের কারণে হাসিনা তার সদ্য জন্ম নেয়া সন্তানটি একজনকে দান করেছেন।



অন্যদিকে লালমনিরহাট আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ মনছুর উদ্দীন বলেন, অভাব ও ঋণের টাকা পরিশোধে সন্তান বিক্রির করা হয়েছি এমন অভিযোগ এর ভিত্তিতে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে এসে জেনেছি সন্তানটি দত্তক দেয়া হয়েছে। আমরা দত্তক নেয়া পরিবারটির সঙ্গে কথা বলে আগামীকালের (শনিবার) মধ্যে ফিরিয়ে দেয়ার কথা বলেছি। এর কোনো ব্যত্যয় হলে আমরা নিজেই বাচ্চাটি এনে হাসিনাকে ফিরিয়ে দেয়াসহ আর্থিক সহযোগিতা দেয়া হবে। সন্তানটির মা শ্রবণ প্রতিবন্ধী হওয়ার কারণে স্থানীয়দের নজর এড়িয়ে সুকৌশলে তার স্বামী এমনটি করার সুযোগ পেয়েছেন এমন ধারণা সবার।

 

বাংলাদেশ সময়: ৯:৪০ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১০ অক্টোবর ২০২০

রয়াল বেঙ্গাল নিউজ.কম |

Development by: webnewsdesign.com

Translate »