ব্রেকিং নিউজ

x

চুয়াডাঙ্গায় ধরা খেয়ে বিয়ে, ১০ দিন পর নববধূর আত্মহত্যা

মঙ্গলবার, ০১ জুন ২০২১ | ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ

চুয়াডাঙ্গায় ধরা খেয়ে বিয়ে, ১০ দিন পর নববধূর আত্মহত্যা

চুয়াডাঙ্গায় নিজ বাড়িতে অন্তরঙ্গ পরিবেশে অবস্থান করার সময় হাতেনাতে ধরে শাহ আলমের সঙ্গে অন্তরা খাতুনের বিয়ে দেন এলাকাবাসী। এরপর স্বামীর পরিবারের নির্যাতন ও কটুকথা সইতে না পেরে আত্মহত্যা করেছেন নববধূ অন্তরা খাতুন।

বিয়ের মাত্র ১০ দিনের মাথায় সোমবার দুপুর অন্তরা গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। অন্তরা খাতুন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার নুরনগর কলোনিপাড়ার কলিম উদ্দিনের মেয়ে। গত ১০ দিন আগে একই গ্রামের আশাদুল হক আশার ছেলে শাহ আলমের সঙ্গে অন্তরার বিয়ে হয়। এলাকাবাসী জানান, প্রতিবেশী যুবক শাহ আলমের সঙ্গে অন্তরা খাতুনের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। গত ২২ মে অন্তরাকে ডেকে নিয়ে নিজ বাড়িতে অন্তরঙ্গ পরিবেশে অবস্থান করছিল শাহ আলম।


এ সময় এলাকার লোকজন তাদের আটক করে এবং ৯০ হাজার টাকা দেনমোহরে তাদের বিয়ে দেয়। শাহ আলমের পরিবার বিষয়টি মেনে না নিয়ে অন্তরাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। সোমবার সকালে অন্তরা পিতার বাড়িতে যায়। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে সিলিং ফ্যানে ঝুলন্ত অবস্থায় অন্তরাকে পাওয়া যায়। তাকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে অন্তরা মারা যায়।

অন্তরার পিতা কলিম উদ্দিন জানান, আমি দোষীদের বিরুদ্ধে থানায় মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি আবু জিহাদ জানান, বিয়ের কয়েক দিনের মাথায় একটা মেয়ের আত্মহত্যা রহস্যজনক মনে হচ্ছে। সে কারণে লাশের ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে। পরবর্তীতে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


বাংলাদেশ সময়: ১০:৪০ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০১ জুন ২০২১

রয়াল বেঙ্গাল নিউজ.কম |

Development by: webnewsdesign.com

Translate »